রাইস চিলা রেসিপি । Rice Chilla recipe

দুপুরের বা রাতের খাবার একটু সময় নিয়ে বানানো গেলেও সকালের ব্রেকফাস্ট আশা করি সবাই যাতে একটু চটজলদি বানানো যায় তাই। একদম সহজ হেলদি ব্রেকফাস্ট রেসিপি।

Healthy Breakfast Recipe

৩০০ গ্রাম চাল / 300g Rice

জল / Wate

r২ টি মাঝারি মাপের পিয়াঁজ / 2 ed Medium Size Onion

১ টি ক্যাপসিকাম / 1 ed Capcicum

২ টি টমেটো / 2 ea Tomatoes

১/২ টি গাজর / 1/2 ea Carrot

ধনেপাতা / Corriander Leaves

কাচা লঙ্কা কুচি / Chopped Green Chillies

স্বাদমত নুন / Salt to taste

১ চা চামচ চিনি / 1 tsp Sugar

২ চা চামচ টকদই / 2 tsp Curd

১/২ চা চামচ মৌরি / 1/2 tsp Fennel

১/২ চা চামচ জিরে / 1/2 tsp Cumin

১.৫ চা চামচ কুচোন আদা / 1.5 tsp Chopped Ginger

১ চা চামচ তেল / 1 tsp Oil

১/২ চা চামচ তেল / 1/2 tsp Oil

ব্রাশ দিয়ে তেল লাগিয়ে নিন / Brush Oil For Chutni

২ চা চামচ তেল / 2 tsp Oil

কুচোন পিয়াঁজ / Chopped Onion

১ চা চামচ কুচোন রসুন / 1 tsp Chopped Garlic

১ চা চামচ কুচোন আদা / 1 tsp Chopped Ginger

২ টি মাঝারি মাপের টমেটো / 2 Medium Size Tomato

৭-৮ টি কাচা লঙ্কা / 7-8 Green Chillies

স্বাদমত নুন / Salt to taste

১ চা চামচ লাল লঙ্কার গুঁড়ো / 1 tsp Red Chilli Powder

১ কাপ চিনা বাদাম / 1 tsp Penuts

জল / Water Tempering

১ চা চামচ তেল / 1 tsp Oil

১ টি শুকনো লঙ্কা / 1 ed Dry Red Chillies

১/২ চা চামচ কালো সরষে / 1/2 tsp Black Mustard

১/২ চা চামচ মৌরি / 1/2 tsp Fennel

১/২ চা চামচ জিরে / 1/2 tsp cumin

কারিপাতা / Cury Leaves

আজকে আমাদের রেসিপি রাইস চিলা। তাহলে এরাই ছিল বানানোর জন্য এখানে নিচ্ছি তিনশ গ্রাম রেগুলার রাইস আপনারা এই রেসিপির জন্য যে কোনও ব্র্যান্ডের যে কোনও রাইস ব্যবহার করতে পারেন এতে আপনাদের ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে দুই থেকে তিনবার জলটা ফেলে দিয়ে তাকে ভালো করে ধুয়ে নেবেন আর জলটা এ রকম পরিষ্কার হয়ে গেলে এটিকে ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে।

আপনাদের মিনিমাম 30 মিনিট মতো আর এটা যতক্ষণ ভেজানো আছে আমি খুব তাড়াতাড়িই আপনাদের মধ্যে কি ভেজিটেবল লাগবে সেটাও দেখিয়ে দিচ্ছি। প্রথমে নিচ্ছি পেঁয়াজ আমি এখানে মিডিয়াম সাইজের পেঁয়াজ কে এভাবে জব করে নিচ্ছি এবার পেঁয়াজের পরে কেটে নেব ক্যাপসিকাম আমি এখানে সব কিছুতেই খুঁজে নেব আপনারা চাইলে এখানে গ্রেট করেও দিতে পারেন নয় আর ক্যাপসিকাম এরপর আমি এখানে মিডিয়াম সাইজের টমেটো কে কেটে নেব আচ্ছা এখানে বলে রাখি আমি যে বলগুলো দিচ্ছি সেগুলি যে আপনাদের দিতে হবে তা নয়। আপনারা আপনাদের পছন্দমত ভেজিটেবল এখানে ব্যবহার করতে পারেন।

আর আশা করি নিশ্চয় দেখলেন এখানে আমি গাজর কীভাবে কেটে নিয়েছি? আর এতক্ষণে উপোস আমাদের প্রায় সবই যেনহয়ে গেছে তাই সেই জলটা ফেলে দিয়ে তাকে মিক্সির মধ্যে নিচ্ছি আর তাতে দিয়ে দিচ্ছি সামান্য একটু জল খুব বেশি জল দিলে এটা কিন্তু আপনার বেস্ট করতে পারবেন না তাই অবশ্যই এখানে জলটা আপনাদের কমই দিয়ে দিতে হবে।

আর পেশ করার পরে অতি অবশ্যই যেন এর টেক্সচারটা ঠিক এরকম আসে আশা করি দেখে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন এরা কতটা বাড়বে বা কতটা পাতলা যে রকম ধোসার ব্যাটার হয় এটাও ঠিক একই রকম হবে এবার এই পুরো ব্যাপারটাকে আমিবলের মধ্যে নিচ্ছি আর নেওয়া হয়ে গেলে তাতে দিয়ে দেবো আমাদের কেটে রাখা হয়েছে টেবিলগুলো, এছাড়াও দেখে নিন।

আর কী কী? লাগবে প্রথমেই দিচ্ছি জন্য ধনেপাতা তারপর ঝালের জন্য কাঁচালঙ্কা সাথে স্বাদমতো নুন এবং সামান্য একটু মিষ্টি আপনাদের এখানে দিয়ে দিতে হবে।

এছাড়াও ব্যাপারটা একটু নরম করার জন্য থাকবে দু চা চামচ টকদই তারপর লাগবে হাফ চা চামচ মৌরি সাথে হাফ চা চামচ জিরে আর সবশেষে লাগবে দেড় চা চামচ কুচনো আদা এবার সবকিছু আপনাদের ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে।

আর মেশানো হয়ে গেলে এখানে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে এক চা চামচ তেল আর সেটা একবার ফাইনালে মিশিয়ে নেবেন তাহলে আমাদের পুরো ব্যাটারটা ভাল করে রেডি হয়ে গেল এটা বানাতে কীভাবে হবে সেটা আপনাদের নিশ্চয়ই দেখাব৷

আর তার আগে খুব সিম্পল চাটনি করে দেখাচ্ছি যেটা আপনার ফ্রিজে মিনিমাম 3 দিন অবধি রাখতে পারবেন আর এই চাটনি বানানোর জন্য ফ্রাই প্যানে নিচ্ছি।

সাদা তেল আর তাতে দিয়ে দিচ্ছি একটু পেঁয়াজ কুচি আর পেঁয়াজ যখনই দেখবেন এ রকম হাল্কা লাল করে ভাজা হয়ে গেছে আর তখনই কানে দিয়ে দিতে হবে এক চা চামচ আদা কুচি এক চা চামচ রসুন কুচি, আদা রসুনের কাঁচা গন্ধ চলে গেলে এখানে আমাদের দিতে হবে মিডিয়াম সাইজের টমেটো কে এভাবে ডাইস করে তার সাথে ঝালের জন্য একটু কাঁচা লঙ্কা ও গ্যাসের ফ্লেম থাকে মিডিয়াম রেখেই 2-3 মিনিট আগে একটু ভালো করে কুকুরে নিয়ে আর তারপর দিয়ে দিন স্বাদমতো নুন স্বাদ মতো চিনি আর রঙের জন্য কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো আমি এখানে বাদাম ব্যবহার করলাম আপনারা চাইলে নারকোল বা কাজুবাদাম এখানে ব্যবহার করতে পারেন।

এ ফাইনালে একটু জল দিয়ে ঢেকে ঢেকে ভালো করে সেদ্ধ করে নিন সেদ্ধ হয়ে যাবার পরে দেখবেন এটা একটু ঘন হয়ে যাবে তারপর ঠাণ্ডা করে এটাকে পেস্ট করে নিন।

তাহলে নিশ্চয়ই দেখতে পেলেন এটা কত সহজে? বানানো যায় এবারের ক্যাম্পেইনের জন্য টিম পেইন পানি নিয়ে নিচ্ছি সামান্য একটু তেল আর তাতে দিচ্ছি শুকনো লঙ্কা সাথে হাফ চা চামচ কালো সরষে হাফ চা চামচ মৌরি আর হাফ চা চামচ গোটা জিরে আর তারপর সবশেষে দিন একটু কারিপাতা আর যদি মনে হয় কারি পাতা না পান সে ক্ষেত্রে আপনারা ধনেপাতা একটু দিয়ে দিতে পারে যারা ডায়েট করছেন তারা এই চারটি টাইফয়েড করতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে এর পরিবর্তে আপনারা টমেটো কেচাপ ব্যবহার করতে পারেন এবার আমি আপনাদের ছেলেটা বানিয়ে দেখাচ্ছি তার জন্য অবশ্যই লাগবে আপনাদের নন স্টিক প্যান তাতেই ভাবে একটু অয়েল ব্রাশ করে নেবেন তার পর আমাদের বানিয়ে রাখা মিক্সারের এইভাবে দিয়ে দিতে হবে দেখতে পাচ্ছেন এটা কত সিম্পল ভাবে বানানো যায়।

এবার গ্যাসের থাকে মিডিয়াম করে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন মিনিমাম 2 মিনিট মতো এবার এক পিঠ হয়ে গেলে অপর পিঠও ঠিক একই ভাবে করে নিন আর তার আগে এই আপনাদের একটু ব্রাশ করে নিতে হবে তা না হলে এটি ক্রিসপি হবে না।

এরপর যখনই দেখবেন দু দিকটাই খুব ভাল ভাবে খুন হয়ে গেছে তখন এটাকে তুলে নিতে হবে।এ একই ভাবে আমি বাকিগুলো বানিয়ে নিচ্ছি ।

আশা করি এই সহজ রেসিপিটি আপনাদের নিশ্চয়ই ভালো লেগেছে আর ভালো লাগল প্রতিবারের মতো আমাকে কিন্তু কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না ব্রেকফাস্ট বা বাচ্চাদের টিফিনের জন্য এটা পারফেক্ট রেসিপি।

আপনারা এ রকম আরও রেসিপি দেখতে চান কিনা সেটা আমাকে অবশ্যই কমেন্ট এ জানাবেন। ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Leave a comment