নিরামিষ পটল রেসিপি । Potol Posto Recipe

পটলের এই রেসিপি টা যতটা কম সময় লাগে করতে ততটাই কিন্তু খেতেও সুস্বাদু হয়। আর এই সহজ রেসিপিটা একদম পারফেক্ট ভাবে বানানোর জন্য ঠিক কী কী করতে হবে সেটা আজ বলবো ।

Potol Posto

৫০০ গ্রাম পটল / 500 grm Parwal

১/২ চা চামচ তেল / 1/2 tsp Oil

৪ চা চামচ হলুদ সরষে / 4 tsp Yellow Mustard

২ চা চামচ কালো সরষে / 2 tsp Black Mustard

৪ চা চামচ পোস্তদানা / 4 tsp Poppy seeds

জল / Water

ছোট টুকরো আদা / Small Pices of Ginger

১০ টি কাচা লঙ্কা / 10 ed Green Chillies

নুন / Salt৫০ মিলি সরষের তেল / 50ml Mustard Oil

১/২ চা চামচ কালো জিরে / 1/2 tsp Onion Seeds

৩ টি গোটা শুকনো লঙ্কা / 3 Whole Red Chillies

১/২ চা চামচ হলুদ / 1/2 tsp Turmeric powder

দিয়েদিন বাটা / Add Paste

১ চা চামচ চিনি / 1 tsp Sugar

স্বাদমত নুন / Salt to taste

জল / Water

কাচা লঙ্কা / Green Chillies

আজকে আমাদের রেসিপি পটল পোস্ত তাহলে পটল পোস্ত বানানোর জন্য আমি এখানে নিয়েছি পাঁচশ গ্রাম পটল আচ্ছা এই রেসিপির জন্য আপনাদের পটল টা কিন্তু এরকম মিডিয়াম সাইজের নিয়ে নিতে হবে।

তাহলে পটল টা খুব তাড়াতাড়ি ক্ষুব্ধ হয়ে যাবে। আসল করত সুবিধা হবে এই পটলগুলোকে আপনাদের একটু ভালকরে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। আমি ছবির মাধ্যমে এইভাবে একটু করে নিচ্ছি আপনারা চাইলে এটা জেলাতেও পিল করে নিতে পারেন।

এই পরোটা ছাড়ানো হয়ে গেলে তাকে কাটাবেন কী ভাবে সেটাও দেখে নিন৷। আর কাটাও খুবই ইচ্ছে সে ভাবে পরের দিয়ে একটু বাদ দিয়ে দেবেন। আর কাটা হয়ে গেলে উপরের দিক থেকে একটুখানি এইভাবে একটু কেটে নেবেন যাতে আমাদের এটা খুব ভালোভাবে ঢুকতে পারে । একে একে আমি বাকি সব কটা পটল ছাড়িয়ে নিচ্ছি।

আচ্ছা এবার পটলগুলোকে? সামান্য নুন। মাখিয়ে নিতে হবে। আর তার জন্য ছোট্ট টিপস আপনার অ্যাপ্লাই করতে পারেন। সেটা হল পটলের মধ্যে সামান্য একটু তেল দিয়ে দেবেন।

তারপর নুন দিয়ে একটু এটাকে ভাল করে ম্যারিনেট করে নেবেন। আচ্ছা এখানে বলে রাখি আপনাদের ম্যারিনেট করার পরে মিনিমাম 10-15 মিনিট একটু রেখে দেবেন।

তাহলে দেখবেন পটলের উপরে খোলা কিন্তু অনেকটাই নরম হয়ে। যাবে তাই ভাজার সময় আপনাদের খুব বেশিক্ষণ সময় লাগবে না। এখানে পটল পোস্ত করার জন্য যে পেস্ট বানাতে হবে সেটার জন্য কী? কী লাগছে দেখে নিন তার জন্য প্রথমে বোল এর মধ্যে আমাদের নিয়ে নিতে হবে চার চা চামচ সাদা সর্ষে সাথে দু চা চামচ কালো সর্ষে আর চার চা চামচ পোস্ত এটা কি আপনাদের মিনিমাম 10-15 মিনিট জলের মধ্যে ভিজিয়ে রাখতে হবে এই প্রসেস টা আপনার রান্না শুরুর আগে করে।

রাখলে বেস্ট হয় কারণ ভিজিয়ে রাখলে পোস্ত সর্ষে বেশ অনেকটাই নরম হয়ে যায় তাই ভাটার সময় খুব ইজি হয়। আর এই রেসিপির জন্য আমাদের খুবই সামান্য আদা লাগবে আমি একটু রাফ লিখে নিচ্ছি যাতে মিক্সিতে পেস্ট করার সুবিধা হয়।

আর ঝালের জন্য লাগবে কাঁচা লঙ্কা এবং সবকিছু মিক্সচার এর মধ্যে দিয়ে ভালো করে আমাদের পেস্ট করে নিতে হবে।

এখানে সবকিছু দেওয়ার পরে অতি অবশ্যই একটু নুন দিতে ভুলবেন না নন দেওয়ার কারণে সেগুলো আর তেতো হবে না তারপর অল্প পরিমাণ জল দিয়ে রেখে ভাল করে আপনারা পেস্ট করে নেবেন।

তাহলে নিশ্চয়ই দেখতে পাচ্ছেন এটা একদম কমপ্লিটলি ফাইন পেস্ট হয়ে গেছে। আর এতক্ষণে পাশে পটল টা ভালো করে রেস্ট হয়ে গেছে তাই ফাইনালে করা নিয়ে গ্যাস্টন করে একটু সরষের তেল দিয়ে।

দিচ্ছি ফটো গুলো কে ভেজে নেওয়ার জন্য আচ্ছা এখানে বলে রাখি পটলগুলোকে আপনাদের কিন্তু খুব বেশি লাল করে ভাজা চলবে না মোটামুটি যখনই দেখবেন ঠিক এরকম কাজ চলে আসছে।

তখনই আপনাদের পটলগুলো তুলে নিতে হবে। নয়, এই পর্বে যেতে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে হাফ চা চামচ কালো জিরে সাথে শুকনো লঙ্কা তারপর এই দুটোকে ভাল করে।

ভেজে নিন ভাজা হয়ে গেলে এখানে দিয়ে দিন হাফ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো হলুদ তাদের তেলেই দিতে হবে তাহলে কিন্তু এর কালার টা খুবই সুন্দর আসবে আর একবার মিশিয়ে নিন।

সাথে সাথে আমরা যে পেস্টটা বানিয়ে রেখেছিলাম সেটা এখানে দিয়ে দিতে হবে। এর মধ্যে বেসন হলুদ থাকলে কিন্তু হলুদ বা কালো হয়ে যাবে।

আর আপনারা হলুদের প্রকার কারা পাবেন না? আশা করি। নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন এই খেলাটা কতটা সুন্দর আসছে। মিক্সিতে দিয়ে তাই জলটা আমি এখানে দিয়ে দিচ্ছি। তারপর সেটাকে মিডিয়াম করে তাকে ভালো করে মিশিয়ে নেব।

আমি সব সময়ই চাই যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে এক চামচ চিনি আর অবশ্যই। স্বাদ মতো নুন এবং এইভাবে আপনাদের মিনিমাম 5-7 মিনিট ভালো করে একটুকরে নিতে হবে তাহলেই দেখবেন আস্তে আস্তে কমতে তা ছাড়া শুরু করবে আর একবার তেল ছেড়ে দিলে আমাদের ভেজে রাখা পটলগুলো সেখানে দিয়ে দেব ।

আর একবার ঘড়ির সাথে।ভাল করে মিশিয়ে নেব। আচ্ছা এখানে ছোট্ট টিপস। ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পরে আপনাকে কোনও ভাবেই জলটা দেবেন না মোটামুটি আরও 5-7 মিনিট আপনাদের এই ভাবে ঢেকে রেখে দিতে হবে।

কারণ এইভাবে থাকলে পটলের মধ্যে থেকে তার এক্সট্র্যাক্টও আস্তে আস্তে বের হওয়া শুরু হবে। তাতে ছবির টেস্টটাও পাবে আর পটল খুব ভালোভাবে সিদ্ধ হয়ে যাবে? আশা করি আমরা নিশ্চিত দেখতে পাচ্ছেন।

এর মধ্যে কিন্তু আস্তে আস্তে জল ছাড়া শুরু হচ্ছে আর এই প্রসেস টা একটু ফাঁক করে নেওয়ার জন্য আপনারা টাকাও দিয়ে দিতে পারেন।

এবার আমি আপনাদের ঢাকা খুলে দেখাচ্ছি দেখুন একদম পারফেক্টলি টাক হয়ে গেছে আর তেলটাও কতটা ভালোভাবে ছেড়ে দিয়েছে ঠিক এই স্টেজ আপনাদের দিয়ে দিতে হবে সামান্য একটু জল কারণ এই রেসিপিটা আপনাদের সেই গ্রেভি ভালো লাগবে তারপরে আবার এটাকে ভালো করে ফুটিয়ে নিতে হবে।

যখন দেখবেন জলটা একটু কমিয়ে আসছে তখন এখানে দিতে হবে। কার্নিশের জন্য, কাঁচা লঙ্কা ব্যস, তাহলে রেডি পটল পোস্ত নয়, আশা করি।

এই রেসিপিটা আপনাদের নিশ্চয়ই ভালো লেগেছে৷ আর ভালো লাগল প্রতিবারের মতো আমাকে কিন্তু কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Leave a comment