ডিমের রেসিপি । Dhaba style egg masala

বাড়িতে একদম রেস্টুরেন্ট এর মধ্যেই মাসালা মানিয়ে নিতে চাইলে আপনারা এই রেসিপিটা ফলো করতে পারেন। এটা টেস্ট কিন্তু অসাধারণ হয়। তাই একবার হল ট্রাই করার রিকোয়েস্ট রইল রেসিপি বানানোর জন্য ।

Restaurent Style Egg Masala Ingredients

৬ টি ডিম / 6 ea Egg

১ চামচ ভিনিগার / 1 tsp Vinigar

১ চা চামচ নুন / 1 tsp Salt

৩০ মিলি সরষের তেল / 30ml Mustard Oil

১/২ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো / 1/2 tsp Turmeric Powder

১/২ চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো / 1/2 tsp Kashmiri Chilli Powder

স্বাদমত নুন / Salt to Taste

টি মাঝারি পিয়াঁজ কুচি / 3 Medium Size Onion Chopped

১ টি ছোট দারচিনির টুকরো / 1Small Sticks of Cinnamon

৬-৭ টি এলাচ / 6-7 ea Cardamom

৫ টি লবঙ্গ / 5 ea Long

১ টি স্টারানিস / 1 ea Star Anise

২ চা চামচ কুচোন কাচা লঙ্কা / 2 tsp Chopped Green Chillies

২ চা চামচ আদা এবং রসুন বাটা / 2 tsp Ginger and Garlic Paste

২ টি টমেটো বাটা / 2 ea Tomato Paste

৪ চা চামচ টকদই / 4 tsp Curd

১ চা চামচ গোলমরিচ গুঁড়ো / 1 tsp Black Pepper Powder

১ চা চামচ জিরে গুঁড়ো / 1 tsp Cumin Powder

১ চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো / 1 tsp Kasmiri Chilli Powder

১ চা চামচ ধনে গুঁড়ো / 1 tsp Coriander Powder

১/২ চা চামচ মৌরি গুঁড়ো / 1/2 tsp Fennel Powder

স্বাদমত নুন / Salt to Taste

১/২ চা চামচ চিনি / 1/2 tsp Sugar

জল / Water

১ চা চামচ গরম মশলা / 1 tsp Garam Masala

কাচা লঙ্কা এবং ধনেপাতা কুচি / Green Chilli and Coriander

আজকে আমাদের রেসিপি রেস্টুরেন্ট স্টাইল এগ মশালা তাহলে রেস্টুরেন্ট স্টাইল এক মশালা বানানোর জন্য আমি এখানে নিয়েছি ছয় টা ডিম ডিম টা গরম করার সময় অতি অবশ্যই এক চা চামচ ভিনিগার সামান্য একটু নুন দিয়ে দেবেন এতে খোলাটা খুব তাড়াতাড়ি ছাড়িয়ে নেওয়া যায় ।

এই রেসিপির জন্য আমাদের ফুটবল ডিম লাগবে তা এগজ্যাক্টলি 10-12 মিনিট করলেই হবে ডিমগুলো পারফেক্টলি সেদ্ধ হয়ে গেলে আমি রেখে ভাল করে ছাড়িয়ে নেব তারপর কড়াই নিয়ে তাতে দিয়ে দেবো সর্ষের তেল।

এবার ছাড়িয়ে রাখা ডিম গুলোকে আমি ডাইরেক্টলি দিয়ে দেবো। সরষের তেলের মধ্যে এই সময় অতি অবশ্যই তেলের টেম্পারেচার টা মিডিয়ামই রাখবেন। এবার এই ডিমগুলো একটু রং আনার জন্য দিয়ে দিচ্ছি হলুদ গুঁড়ো আর কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো আর সাথে একটু নুন দিতে ভুলবেন না ।

আমি এখানে একটু কমই বেছে নিচ্ছি আপনারা চাইলে একটু কড়া করে ভেজে নিতে পারেন এ বারে একই ডিম ভাজার তেলে দিয়ে দিচ্ছি পেঁয়াজ কুচি।

আমি এখানে মিডিয়াম সাইজের পেঁয়াজ ভাল করে কুচিয়ে নিয়েছি। আর এই কাজটা আপনাদের কাছে প্রেমটাকে হাই করে ততক্ষণ ভাজতে হবে।

যতক্ষণ না এটা একদম লাল লাল হয়ে আসছে। এই পেঁয়াজের সঙ্গে আপনার বিয়ে দেবেন কিছু গোটা গরম মশলা যেমন ছোট্ট টুকরো, দারচিনি ছয় টা থেকে এলাচ সাথে লবঙ্গ আর স্টার আনিস পেঁয়াজটা কিন্তু এখন একদম কমপ্লিটলি ভাজা হয়ে গেছে ঠিক এই যে এখানে ঝালের জন্য দিতে হবে কাঁচালঙ্কা।

তার পরে তাঁকে একবার ভালো করে মিশিয়ে নিন। এক থেকে দেড় মিনিটের মধ্যেই দেখবেন আস্তে আস্তে তেল ছাড়া শুরু হচ্ছে যখনই দেখবেন এইভাবে তেলটা ছেড়ে দিয়েছি। এখানে দিতে হবে আদা, রসুনবাটা, আদা রসুন দেওয়ার পরে আপনাদের খুব বেশি ক্ষণ ভাজতে হবে না।

এক থেকে দেড় মিনিট ভাল করে ভাজা হয়ে গেলে এখানে দিয়ে দেবেন টমেটো বাটা। আমি এখানে মিডিয়াম সাইজের টমেটো দিয়ে ভালো করে পেস্ট করে নিয়েছি আচ্ছা এখানে বলে রাখি টমেটোটা কিন্তু আপনাদের খুব ভালো করে খুব করে নিতে হবে।

তার কারণ ডিমের মধ্যে থেকে আপনারা ইন্ডিভিজুয়াল কোনও রকম ফ্লেভার পাবেন না যেটা আপনারা মাংস বা মাছ পেয়ে থাকেন। তাহলে টমেটো যদি কাঁচা থেকে যায় সে ক্ষেত্রে ডেবিট টেস্টটায় একদমই ভাল আসবে না।

তাই একটু ধৈর্য ধরে থাকে, ভালো করে করে নেবেন। আর এটা যতক্ষণ কুক হচ্ছে পাত্রে নিয়ে নিয়েছি চা চামচ টক দই তাতে দিয়ে দিচ্ছি এক চা চামচ গোলমরিচ গুঁড়ো সাথে এক চা চামচ জিরে গুঁড়ো রঙের জন্য কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো আরও লাগছে ধনে গুঁড়ো আর সামান্য একটু মৌরি গুঁড়ো যদি পারেনি মুড়ি গুড় ওটা কিন্তু অবশ্য ই দিয়ে দেবেন।

এতে টেস্টের আলাদা মাত্রা এনে দেয় যদি আপনারা মুড়ি টানা ব্যবহার করতে চান সেক্ষেত্রে এখানে কাসুরি মেথি পাতা ব্যবহার করতে পারেন।

আচ্ছা এবার দেখে নিন পেঁয়াজ টমেটো টা খুব ভাল ভাবে খুন হয়ে গেছে। তাই এখানে আমি দুই মিশ্রণটা দিয়ে দিচ্ছি দই মিষ্টি দেওয়ার পরে আপনাদের খুব বেশিক্ষণ সময় লাগবে না।

এক থেকে দেড় মিনিটের মধ্যেই দেখবেন খুব সুন্দর গন্ধ বেরোচ্ছে আর আস্তে আস্তে তেলটা ঝড়ে শুরু করছে একটু মিষ্টির জন্য দিয়ে দিচ্ছি সামন্য একটু চিনি।

যখনই দেখবেন এইভাবে তেলটা ছেড়ে দিয়েছে তখন এখানে দিতে হবে পরিমাণ মতো জল।

জলটা তার পরে আমাদের ভেজে রাখা ডিমগুলো ছিলো সেগুলো এখানে দিয়ে দিচ্ছি।

দিনটা তারপর ঢাকা দিয়ে রেখে ভাল করে একটু করে নিন। এই সময়ে কাজের ফ্রেমটা অতি অবশ্যই রাখবেন।

এবার 3-4 মিনিট পরে ঢাকনা খুলে দেখাচ্ছি। দেখুন এই মশলা কিন্তু একদম পারফেক্টলি এটা যতটা দেখতে সুন্দর হয়েছে টেস্টেও কিন্তু অসাধারণ হয়।

আর এই রেসিপিটা জিনিস করার জন্য আপনাদের দিয়ে দিতে হবে। এক চা চামচ গরম মসলা সাথে গার্নিসের জন্য কাঁচালঙ্কা আর সামান্য একটু ধনেপাতা কুচি।আশা করি এই সম্পূর্ণ রেসিপিটা আপনাদের নিশ্চই ভালো লেগেছে৷

আর ভালো লাগল প্রতিবারের মতো আমাকে কিন্তু কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Leave a comment