চিকেন সুপ রেসিপি । chicken soup recipe

খুবই কম সময় একদম হেলথি তো ছাদে যদি রেস্টুরেন্টের মতো চিকিৎসক আপনারা বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন তাহলে আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে।

Chicken Soup Recipe

৩০০ গ্রাম চিকেনের হাড় ও মাংস

২ চা চামচ সাদা তেল

১ চা চামচ গোটা গোলমরিচ

২ টি তেজ পাতা

৩ লিটার জল

১ টি গাজর কুঁচি

৫০ গ্রাম মিষ্টি ভুট্টা

৫০ গ্রাম বিন্স কুঁচি

৫ চা চামচ পিঁয়াজ পাতা কুচোনো

স্বাদমতো নুন

১ চা চামচ গুঁড়ো গোলমরিচ

২ টি ডিম

৩ চা চামচ কর্নফ্লাওয়ার

পিঁয়াজ পাতা কুচোনো

আর তার জন্য এই রেসিপিতে দেওয়া ছোট ছোট টিপস গুলো আপনাকে ফলো করতে হবে। তাহলে চলুন রান্না শুরু করা যাক ।

আজকে আমাদের রেসিপি চিকেন স্যুপ তাহলে চিকেন স্যুপ বানানোর জন্য সবার প্রথমে আমাদের লাগছে বেশি তাই চিকেনের হাড় ও তার সাথে চিকেনের সলিড পিচ আমি নিয়ে নিয়েছি পরে যাতে সলিড পিস গুলো থেকে চিকেন নিয়ে স্যুপে ব্যবহার করতে পারি চিকেন স্যুপ বানানোর জন্য এই চিকেন হাড় গুলো কিন্তু খুবই ইম্পরট্যান্ট চিকেন স্টকের আসল টেস্টটা কিন্তু এই হারগুলো থেকে আসে।

আর এই চিকেন স্টকটা বানানোর জন্য কড়াইতে নিচ্ছি। প্রায় দুই চা চামচ সাদা তেল আর তাতে দিয়ে দেব এক চা চামচ গোটা গোলমরিচ আর তেজপাতা আর এই একটু ভাল করে ভাজা হয়ে গেলে গ্যাসের প্রেমটাকে মিডিয়াম করে।

আমাদের যে চিকেনগুলো ছিল সেগুলোর মধ্যে দিয়ে দিচ্ছি। আচ্ছা এখানে মোস্ট ইম্পরট্যান্ট টিপস যার জন্য এই আরও অনেকটা বেড়ে যায় সেটা হল এই চিকেনগুলো দেওয়ার পরে আপনারা কিন্তু 1-2 মিনিট কোনও ভাবে চিকেন গুলোকে পাল্টাবেন না।

আর একটু ওয়েট করার পরে যখন আপনারা চিকেনগুলোকে পাল্টাবেন দেখবেন এরকম সুন্দর কালার চলে এসেছে এরকম ব্রাউন কালার টা না আসলে চিকেনের যে স্টকটা হবে সেটা কিন্তু স্বাদ খুব বেশি ভালো হবে না।

সব হোটেল বা রেস্টুরেন্টে চিকেনগুলোকে এইভাবে ব্রাউন করার পরে কিন্তু স্টকটা বানানো হয় সেজন্যই সেখানকার স্যুপের স্বাদ এতটা ভাল হয় আর অপর পেটটাও ভাল করে ব্রাউন হয়ে গেলে স্টকটা বানানোর জন্য আমি এখানে দিয়ে দিচ্ছি পরিমাণ মতো জল যেখানে জলটা কতটা দেবেন সেটাও বলে রাখি যদি আপনাদের এখানে স্যুপ বানাতে হয় তাহলে আপনার এখানে জল ব্যবহার করবেন।

তিন লিটার মতো মানে যদি আপনাদের দু কাপ চা বানাতে হয় তাহলে আপনারা জল ব্যবহার করবেন। তিন কাপ মতো জল দেওয়ার পরে গ্যাসের ফ্লেম থেকে হাই করে আপনারা একটু ওয়েট করতে হবে।

যখনই দেখবেন স্টকটা কোন ফুটে গেছে তখন মিডিয়াম করে যে এক্সট্রা ফেনাগুলো বেরোচ্ছে সেগুলো কী ভাবে বের করে দিতে হবে। আমি এর আগেও অনেক রেসিপিতে মেনশন করেছি। এই ফাইলগুলো বেসিক্যালি হচ্ছে চিনের ইম্পিউরিটিস বা ময়লা এগুলো বের করে দিলে চিকেন স্টকটার কিন্তু একটু ভালই হয়।

গ্যাসের ফ্লেম তাকে হাই করে চিকেন স্টকটা আমাদের একটু ফুটিয়ে নিতে হবে। আর এটা যতক্ষণ ফুটছে এই চিকেন স্যুপের জন্য আমাদের কী কী ভেজিটেবল লাগবে সেগুলো কীভাবে কেটে নিতে হবে।

দুটি আপনাদের দেখিয়ে দিচ্ছি সবার প্রথমে আমি গাজর নিয়েছি সেটাকে আপনারা এরকম মাঝখান থেকে দু ভাগ করে নেবেন। এই দু ভাগের এক ভাগ তাঁকে নিয়ে মাঝ বরাবর কেটে নিয়ে এ ভাবে ছোট ছোট করে পিস করে নিতে হবে।

আপনারা চাইলে যেকোনো শেপে কেটে নিতে পারেন। আমার মনে হয় এভাবে কেটে নিলে একটু সুবিধে হয় আর এই পুরো গাছটাই কাটা হয়ে গেলে এটাকে আমি পাত্রের মধ্যে তুলে নিচ্ছি আর সাথে নিয়ে নিয়েছি একটুখানি সুইট কর্ন স্যুপ টা আর একটু কালারফুল করার জন্য আমি এখানে একটুখানি বিনস ও চোখ করে নিচ্ছি।

এরপর আমি এখানে একটু পেঁয়াজ পাতা চপ করে নেব। আপনারা চাইলে এখানে কিন্তু পেঁয়াজও ব্যবহার করতে পারেন বা পেঁয়াজ পাতা দিয়ে একটু ভাল হয় আর কিআর পেঁয়াজপাতা যে পেছনের অংশের পেঁয়াজটা থাকে সেটাকে আমরা ভালো করে চোখ করে নেব ব্যস আমি এখানে আর কোনও রকম ভেজিটেবল ব্যবহার করছি না।

আপনারা চাইলে কিন্তু আরও অনেক ভেজিটেবল এখানে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও কিছু ইংলিশ ভেজিটেবিল ব্যবহার করতে পারেন যেমন সেলের জুকিনি কিংবা আপনারা চাইলে এখানে মাশরুম ও ব্যবহার করতে পারেন।

আর এতক্ষণে আমাদের চিকেন স্টকটা রেডি হয়ে গেছে দেখতে পাচ্ছেন বেশ অনেকটাই হয়ে এসেছে ৷ আর চিকেন গুলো খুব ভালোভাবে বল হয়ে গেছে এই চিকেনগুলোকে আমি একা একা স্টকের মধ্যে থেকে তুলে নিচ্ছি।

এগুলো ভালো করে ঠাণ্ডা হয়ে গেলে হাড় থেকে মাংস গুলো কে ছাড়িয়ে নেব৷ আর তার আগে ও পরে আমি চিকেন স্টকটা স্ট্যান্ড করে নিচ্ছি বাড়িতে নিশ্চই রকম চায়ের ছাঁকনি থাকবে। এরকম ছাঁকনি দিয়ে আপনাদের স্টক ছেঁকে নিতে হবে।

পুরুষ টপটা ভাল করে ছাঁকা হয়ে গেলে গ্যাসের প্রেমটাকে হাই করে এটাকে আমাদের ফুটতে দিতে হবে। আর ফোটার সময় আমাদের যে বল গুলো আছে সেগুলো কেকের মধ্যে দিয়ে দিচ্ছি।

গার্নিসের জন্য আমি এখানে একটুখানি, পেঁয়াজপাতা বাকি রাখছি। এটা আমি সুপার রেডি হয়ে গেলে উপর থেকে ছড়িয়ে দেবো। এই যে বলগুলোকে ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে এখানে দিয়ে দিচ্ছি।

স্বাদমতো নুন। আর এক চামচ মতো গোলমরিচ গুঁড়ো ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে আমাদের ওয়েট করতে হবে বল আসার জন্য যতক্ষণ না বদলাচ্ছে ততক্ষণ আমি চিকেনগুলোকে একটু ছাড়িয়ে নিচ্ছি। দেখুন চিকেনগুলো খুব ভালোভাবে সেদ্ধ হয়ে গেছে। আমি এখানে আপনাদের ক্ষমা করব এইভাবে হাতে করেছিলেন আর আপনারা চাইলে এখানে কিন্তু ছবিতে ছোট ছোট করে টুকরো করে নিতে পারেন।

আর চিকেনগুলোকে এভাবে বুড়ো আঙ্গুল দিয়ে চাপ দিলেই কিন্তু খুব সহজেই গুলো ছাড়ানো হয়ে যায়। যে হাড়ের পিস গুলো আছে তার মধ্যে মাংস গুলো আছে সেগুলো ভাল করে ছাড়িয়ে নেব।

তাহলে চিকেন বল গুলো থেকে চিকেনগুলো ভালো করে বললে করে নিয়েছি একটু ধৈর্য ধরে এটা করে নেবেন তাহলে আর কোনও রকম ওয়েস্টেজ হবে না। এই চিকেন স্যুপ টা একদম রেস্টুরেন্ট স্টাইল করার জন্য ডিম নিয়ে নিচ্ছি সেগুলোকে একদম খুব ভালো করে ফেটিয়ে নেব স্যুপ থাকে পরে একটু ঘন করার জন্য কর্নফ্লাওয়ার গুলে রেখেছি।

তাহলে এবার ফাইনালে আমরা সুপারিশ করব তার জন্য আমরা যে চিকেন গুছিয়ে রেখেছিলাম সেগুলো স্যুপের মধ্যে দিয়ে দিচ্ছি। আর চিকেনটা দেওয়ার পরে খুব ভালো করে একবার মিশিয়ে নেবেন যখনই দেখবেন এরকম আস্তে আস্তে বয়সে শুরু হচ্ছে তখন উপর থেকে ছড়িয়ে দেবো।

আমাদের আগে থেকে করে রাখা কর্নফ্লাওয়ার আপনি যেরকম ঘনত্ব পছন্দ করেন। সে অনুযায়ী এখানে কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে দেবেন। আমি বলব খুব বেশি ঘন না হয় আর সবশেষে গ্যাসের ফ্লেম থেকে একদম লো করে আমাদের উপর থেকে ছড়িয়ে দিতে হবে। ফেটানো ডিমটা ব্যস তাহলে রেডি আমাদের একদম রেস্টুরেন্ট স্টাইল, চিকেন স্যুপ আর গার্লিক জন্য উপর থেকে একটু পেঁয়াজ পাতা ছড়িয়ে দিচ্ছি।

আর আশা করি আপনাদের এই রেসিপিটা নিশ্চয়ই ভাল লাগবে। আর ভালো লাগলে প্রতিবারের মতো আমাকে কিন্তু কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। এটা খুবই হেলদি আর খুবই সুস্বাদু একটি রেসিপি বাড়িতে একবার হল ট্রাই করার রিকোয়েস্ট রইল যদি আপনারা একটু ঝাল ঝাল খেতে পছন্দ করেন সেক্ষেত্রে একটু কাঁচা লঙ্কা বা এরকম একটি চিলি ফ্লেক্স ছড়িয়ে দিতে পারেন বলে দেবে।

Leave a comment